রকে বলব, আজকের পর্বে আসুন এ

shutterstock_58382248

asdfijadsf

asdflkjasdf

asdfljasdf

asdflijasdf


একজন খৎনাধারী ঠিক কোন্‌ পর্যায়ে গেলে ‘দেবতা/দেবী’ হয়ে ওঠে, সেটা আজ  কাউকে বলে দিতে হবে না নিশ্চয়। এখানে যে খৎনাধারী দেবতাদের কথা বলা হচ্ছে  তাদের কাছে তসলিমা-থাবাবাবা-রা একেবারেই শিশু দেব-দেবী! এই উদাহরণটা থেকে  বুদ্ধিমান পাঠকদের কাছে ব্যাপারটা পরিষ্কার হওয়ার কথা। এবার দেখা যাক  খৎনাধারী দেবতারা একে-অপরের সম্পর্কে কী বলে।

 

১. নিচের ভিডিওতে ১ম দেবতা ২য় দেবতার মুখোশ উন্মোচন করছে-

https://www.youtube.com/watch?v=wD0CWN-tMjA

 

কে আসল দেবতা আর কে নকল দেবতা – এ নিয়ে মন্তব্যের ঘরে ভক্তরা বিভ্রান্ত!

 

২. নিচের ভিডিওতে ৩য় দেবতাও ২য় দেবতার মুখোশ উন্মোচন করছে-

https://www.facebook.com/bidur.das.5/posts/1471668656218256

 

এখানেও ভক্তরা বিভ্রান্ত!

 

৩. নিচের ভিডিওতে একজন খৎনাধারী মুক্তমনা কম্যুনিস্ট  (ইসলাম ও মুসলিম-বিদ্বেষী ফ্যানাটিক, যে কিনা সামু ব্লগে একটা সময় দেবতা  হওয়ার পর্যায়ে ছিল) ৩য় দেবতার মুখোশ উন্মোচন করছে-

https://www.youtube.com/watch?v=17CDqrQ7gps

 

অর্থাৎ পুরো ব্যাপারটা সেই ধর্মের দেবতাদের মধ্যে লড়াইয়ের মতো হয়ে গেছে!  এক দেবতা আরেক দেবতার মুখোশ উন্মোচন করছে! কে আসল দেবতা আর কে নকল দেবতা –  ভক্তদের সামনে এইটা প্রমাণের প্রতিযোগিতা চলছে! মাঝখানে থেকে সবগুলো  দেবতাই মিথ্যাবাদী, ভণ্ড, ধান্দাবাজ, ইত্যাদি প্রমাণ হয়েছে! এই খৎনাধারী  দেবতাদের সকলেই কিন্তু মুক্তমনা। দেবতাদের মধ্যে এহেন লড়াই দেখে ভক্তরা চরম  বিভ্রান্তির মধ্যে পড়েছে! কেউ কেউ আবার কোনো দেবতাকে ‘ছুপা মুসলিম’ ধরে  নিয়ে গালিগালাজও করছে! পেগ্যানদের কাছে কেউ দেবতা হতে


lk

lkasdflk
lkajsdf
lkajsdf
asdfj
asdlfj
lajsdfljk  

asdf

Leave a comment